ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য AutoCad 2019! আর্কিটেক্ট, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার এবং ইলেক্ট্রিক্যাল  ইঞ্জিনিয়ার!!

তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে সফটওয়্যার স্কিল দেহের বিভিন্ন অঙ্গের ন্যায় গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এখন ইঞ্জিনিয়াররা তো বটেই, অন্যান্য পেশায় নিযুক্ত ব্যক্তিরাও তাদের পেশাগত জীবনে বিভিন্ন সফটওয়্যার ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছেন। অফিস -আদালতে এম এস ওয়ার্ড, এক্সেল, সি, পাওয়ার পয়েন্ট ,অটোক্যাড প্রভৃতি সফটওয়্যার ব্যপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। বিভিন্ন সহজ ও জটিল নকশা তৈরির জন্য ডিজাইনারদের প্রথম পছন্দই হল AutoCAD. AutoCAD হল একটি Computer Aided Design software যা 2-D ও 3-D ডিজাইনে বহুল ব্যবহৃত হয়। এর প্রস্তুতকারক ও প্রকাশক হল Autodesk Inc. পিসিতে প্রথম দিকের Computer Aided Design এর সফটওয়্যার গুলার একটি হল AutoCAD. অনেক পুরোনো হলেও এর আবেদন হারিয়ে যায়নি, বরং তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

 

 

A 2019

 

AutoCAD এর Version প্রতি বছরই আপডেট করা হয়। এর সর্বশেষ Version হল AutoCAD 2019. নতুন Version এ ডিজাইনিং এর কাজগুলো আগের চেয়ে হয়েছে  আরো সহজ ও আকর্ষণীয়। এর বিভিন্ন ট্যাব  ও তার অধীনে বিভিন্ন প্যানেল্গুলো পেয়েছে স্মার্ট লুক।বিভিন্ন শর্টকার্ট কী এর মাধ্যমে এর ব্যবহার হয়েছে আরো মসৃণ।  3 D Modelling করা অনেক পুরনো Version গুলোতে খুব একটা সুবিধাজনক না হলেও নিয়মিত আপডেট করার ফলে এই Version এ এটি বেশ গ্রহনযোগ্য পর্যায়ে পৌছেছে। এছাড়াও, এর ডাইনামিক ব্লক, ডব্লিউ ব্লক সহ বিভিন্ন মজার মজার কমান্ড রয়েছে যার মাধ্যমে অনেক কাজ অনেক কম পরিশ্রমে করা যায়। তারমানে, আপনি এই আপডেটেড  Version ব্যবহার করে অনেক সহজে অনেক জটিল নকশা বাস্তবায়ন করতে পারবেন। এর মাধ্যমে মেকানিক্যাল, আর্কিটেকচার,  ইলেক্ট্রিক্যালের বিভিন্ন ডিজাইন খুব সহজে বাস্তবায়ন করা যায়। মেকানিক্যাল বিভিন্ন মেশিন পার্টস, বিভিন্ন ডিভাইস ডিজাইনে বহুল ব্যবহৃত সফটওয়্যার হল AutoCAD .বিল্ডিং ফ্লোর প্ল্যান, ফ্রন্ট এলিভেশন প্রভৃতি কাজে আর্কিটেক্টদের বহুল ব্যবহৃত সফটওয়্যারও এটি। এছাড়াও, কেউ আউটসোর্সিং করতে চাইলে এই সফটওয়্যারে পারদর্শিতা এনে দিতে পার অনেক নামিদামি বিদেশি কোম্পানির অনেক হাই-পেইড কাজ ;যার মাধ্যমে চলে আসবে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি।

 

FR

 

অটোক্যাড এর দক্ষতা সব সময়ই ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়ে আসছে। যে কোন ইঞ্জিনিয়ারিং ফার্মে, ফ্যাক্টরিতে অটোক্যাড এর কাজের চাহিদা অনেক। আর্কিট্যাক্টরা তাদের চিন্তা-ভাবনার বিকাশ ঘটান অটোক্যাডে। প্রথমে সারভেয়িং এর মাধ্যমে একটি স্থানের বিভিন্ন পরিমাপ তারা নিয়ে থাকেন। তারপর ক্লায়েন্ট এর কাছ থেকে বুঝে নেন যে, তিনি আসলে কি ধরনের ডিজাইন চাইছেন। এরপর আর্কিটেক্ট তার মেধা-মননে সুসজ্জিত করতে থাকেন তার খসড়া নকশা। এই কাজে তার সংগী হয়ে ওঠে অটোক্যাড। অটোক্যাডে ধীরে ধীরে তিনি গুছিয়ে উঠতে থাকেন তার ডিজাইন। কখনো কখনো তিনি এডিট করে তার নকশাটিকে ঘষে-মেজে নেন। নকশার প্রথমেই তিনি করেন ফ্লোর প্ল্যান।যেহেতু এটিই তার ডিজাইওনের ভিত্তি, তাই এটি তিনি করে থাকেন বেশ যত্নের সাথে । কারণ, ভিত্তি যত মজবুত হবে চুড়ান্ত নকশাটি হবে ততই আকর্ষণীয়। তাই তিনি এর ডিটেইলিং এর কাজটি করেন খুব গুরত্বের সাথে। ফ্লোরের কোন জায়গায় কোন রুম হবে, কোন রুমে কোথায় ডোর, উইন্ডো থাকবে তা নির্ধারণ করেন তিনি। এটি খুবি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এর উপরেই নির্ভর করবে তার অন্যান্য ডিজাইনগুলি। তিনি যখন ফ্রন্ট এলিভেশন, ইস্ট এলিভেশন, সাউথ-ইস্ট এলিভেশনের কাজ করবেন তখন কিন্তু তার রেফারেন্স হবে ফ্লোর প্ল্যান। কাজেই, ফ্লোর প্ল্যানে উনি যেভাবে উইন্ডো, ডোর ইত্যাদি সিলেক্ট করবেন সেভাবেই তার অন্যান্য ডিজাইনগুলি প্রভাবিত হবে। এছাড়াও, কোন রুমে কোন ধরণের আসবাবপ্ত্র থাকবে তাও নির্ধারণ করা যায় অটোক্যাড এর মাধ্যমে। এসব ডিজাইনে থাকে চেয়ার, টেবিল, ওভেন, প্রেশার কুকার, টিভি সহ  বিভিন্ন অবজেক্ট যা অটোক্যাড  ২০১৯ এর আর্কাইভে  বিভিন্ন ব্লকে সংরক্ষিত রয়েছে। ডিজাইন করতে গিয়ে যখন যেই  অবজেক্ট দরকার হবে তখন সেই ব্লকটি ইনসার্ট করলেই সহজেই রুম ডিজাইন করা যাবে। এরপর , তিনি মনোনিবেশ করেন ফ্রন্ট এলিভেশনে। ফ্লোর প্ল্যানের যে ফ্রন্ট সাইড আছে সে জায়গার বিভিন্ন অংশ থেকে ধীরে ধীরে তিনি করতে থাকেন ফ্রন্ট এলিভেশনের কাজ। এটির রেফারেন্স যেহেতু ফ্লোর প্ল্যানের ফ্রন্ট সাইড, তাই ফ্লোর প্ল্যানটি যত সুচিন্তিত ভাবে করা হবে , ফ্রন্ট এলিভাশনের কাজটিও তত গোছানো ও সহজ হবে।

 

F 1

 

মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়াররাও তাদের বিভিন্ন ডিজাইনের কাজ অটোক্যাডের মাধ্যমেই করে থাকেন। বহু মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের সফটওয়্যারের হাতেখড়ি হয় অটোক্যাডের মাধ্যমেই। বিভিন্ন সিম্পল পার্ট যেমনঃ নাট-বোল্ট,  স্প্রিং ইত্যাদি ডিজাইনিং এর ক্ষেত্রে অটোক্যাডের সহযোগিতা হয়ে আসে আশির্বাদস্বরূপ। এছাড়াও কিছুটা জটিল ডিজাইন যেমনঃ গিয়ার, বেজপ্লেট ইত্যাদিও সহজেই করে ফেলতে পারবেন অটোক্যাডে । মেকানিক্যাল ডিজাইনের বেসিক ধারণা থাকলেই আপনি অটোক্যাডের বিভিন্ন টুল ব্যবহার করে আঁকতে পারবেন এই ধরণের বেশ কিছু ডিজাইন। এছাড়াও, রয়েছে আইসোম্যাট্রিক ভিউ আঁকার সুবিধা। এমনকি অর্থোগ্রাফিক প্রজেকশনের মাধ্যমে টপ ভিউ, ফ্রন্ট ভিউ, সাইড ভিউ ইত্যাদি আঁকতে পারবেন। এছাড়াও, অটোক্যাডে রয়েছে থ্রি-ডি-মডেলিং এর সুবিধা। এটি ব্যবহার করে আপনি থ্রি-ডি অবজেক্টও আঁকতে পারবেন। ফলে, আপনার ডিজাইনের বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয়গুলো আরো সহজেই ফুটে উঠবে।

 

AutoCAD

 

ইলেক্ট্রিক্যাল ড্রয়িং এর বিভিন্ন বিষয়গুলিও অটোক্যাডের মাধ্যমে করা সম্ভব। তবে এক্ষেত্রে অটোক্যাডের চেয়ে অটোক্যাড ইলেক্ট্রিক্যাল ২০১৯ সফটওয়্যারটি বেশি সুবিধাজনক। কারণ, এর বিভিন্ন রিবনগুলি যেমনঃ ইনসার্ট ওয়্যার, ইনসার্ট ল্যাডার ইত্যাদির সাহায্যে সহজেই আপনি অনেক ডিজাইনের কাজ করে ফেলতে পারবেন।অটোক্যাড ২০১৯ এও আপনি এই কাজটি করতে পারেন, কিন্তু সেজন্য আপনাকে অনেক বেশি স্টেপ অতিক্রম করে একি কাজ করতে হবে যা আসলে অনেক সময় সাপেক্ষ। ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়াররা অটোক্যাডের মাধ্যমে বিভিন্ন সার্কিট ডিজাইন করে থাকেন। এসব ডিজাইনে থাকে মোটর, রিলে, সুইচসহ বিভিন্ন কমপোন্যান্ট যা অটোক্যাড ইলেক্ট্রিক্যাল ২০১৯ এর আর্কাইভে  বিভিন্ন ব্লকে সংরক্ষিত রয়েছে।   ডিজাইন করতে গিয়ে যখন যেই কমপোন্যান্ট দরকার হবে তখন সেই ব্লকটি ইনসার্ট করলেই সহজেই সর্কিট ডিজাইন করা যাবে।এমনকি অটোক্যাডে ইনসার্ট সার্কিট নামে একটি অপশন আছে যার মাধ্যমে সরাসরি সার্কিটও ইনপুট করা যায়। আপনি যেই ডিজাইনটি করবেন তার কোন অংশের  সাথে যদি আর্কাইভের কোন সার্কিট ব্লক মিলে যায় তবে আপনি ইন্সার্ট করে সরাসরি সার্কিটটি ব্যবহার করতে পারেন। এভবে, আপনার অনেক কাজ কমিয়ে ফেলেছে অটোক্যাড ইলেক্ট্রিক্যাল ২০১৯ এর এই বিশেষ ফিচারগুলো।

 

3D

 

কর্মক্ষেত্রে প্রতিনিয়ত প্রতিযোগিতা বাড়ছে। এখন শুধু সার্টিফিকেট অর্জন করাটাই কর্মের নিশ্চয়তার একমাত্র নিয়ামক নয়। এর পাশাপাশি বিভিন্ন সফটওয়্যারে পারদর্শিতাও গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছে। এখন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান চাকরি প্রার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে পোর্টফোলিও এর উপর ও সমান গুরুত্ব আরোপ করছে। কারন, সিভিতে বিভিন্ন সফটওয়্যারে দক্ষতার কথা উল্লেখ করলেও বাস্তবে দেখা যায়, প্রার্থীকে ওই প্রতিষ্ঠানেরই পরে ট্রেইন করে নিতে হয় যা চাকরিদাতার জন্য অনেক ব্যয়বহুল ও সময়সাপেক্ষ ব্যপার। সরকারী প্রতিষ্ঠানগুলো  তাদের কর্মীদেরকে ট্রেইনিং এর মাধ্যমে দক্ষ করে গড়ে তুলতে পারলেও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে এটি এখন প্রায় অসম্ভব। প্রচুর ক্লায়েন্টের প্রেসার সামলে আবার আনাড়ি কর্মীকে নিয়ে সময় ব্যয় করার চেয়ে একজন দক্ষ কর্মী নিয়োগ করাই সবার প্রথম পছন্দ থাকে। এমনকি সরকারী সার্কুলারে এখন বিভিন্ন সফটওয়্যারে পারদর্শি প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হয় ও অনেক নিয়োগে লিখিত, ভাইভার পাশাপাশি সফটওয়ারে দক্ষতার পরীক্ষাও নেয়া হয়। যারা ফ্রি ল্যান্সিং পেশায় আসতে চান, তাদের জন্য অটোক্যাডে পারদর্শিতা হয়ে উঠতে পারে অনেক অর্থকরী। প্রচন্ড প্রতিযোগিতার মাঝে এই এডভান্সড সফটওয়্যারে পারঙ্গমতা আপনাকে ভিড় থেকে করে তুলবে অনেকটাই আলাদা। আর আপনার এই ধরণের কাজের পোর্টফোলিও আপনাকে অনেক কাজ পরে সহজেই পেতে সাহায্য করবে এবং আপনার কাজের পেমেন্ট বৃদ্ধিতেও রাখবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

তাই, এটি দ্ব্যর্থহীনভাবে বলা যায় যে, AutoCAD 2019 ব্যবহারের পারদর্শিতা আপনাকে চাকুরির বাজারে সব দিক থেকেই অন্য সবার চেয়ে এগিয়ে রাখবে। তাই আর দেরি কেন? আজই  AutoCAD 2019 ইন্সটল করুন আপনার পিসিতে এবং ধীরে ধীরে হয়ে উঠুন এর একজন দক্ষ ব্যবহারকারী।

 

ফেইসবুকের সাহায্যে মন্তব্য দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.